ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার নিয়ম ২০২৩

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

ভোটার আইডি কার্ড বা NID card হলো একজন বেক্তির দেশের নাগরিকতার প্রমান। জাতীয় পরিচয় পত্র প্রত্যেকের দেশের বৈধ বাসিন্দার একটি প্রমান পত্র।

বর্তমান সময়ে যে কোন কাজের জন্য ব্যক্তির জাতীয় পরিচয় পত্র চেক করে থাকে। তাই একজন বাংলাদেশী নাগরিক হিসেবে প্রত্যেকের এই জাতীয় পরিচয়পত্র থাকা আবশ্যক।

নতুন ভোটার নিবন্ধন করেছেন? তাহলে ভোটার নিবন্ধন স্লিপ নম্বর বা NID card নম্বর দিয়ে আপনার ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড বা NID Card Download করতে পারবেন। এখানে দেখাবো, কিভাবে আপনার মোবাইলের মাধ্যমেই অনলাইন থেকে NID কার্ড বা ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করবেন তার ধাপসমূহ।

Topics

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার নিয়ম

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/ লিংক এ প্রবেশ করে জাতীয় পরিচয়পত্র নাম্বার, জন্ম তারিখ এবং সিকিউরিটি ক্যাপচা পুরন করে একটি একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। একাউন্ট করার পর ড্যাশবোর্ড থেকে আপনার ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন। সম্পূর্ণ বিষয়টি কিভাবে করতে হবে তা ধাপে ধাপে দেখানো হয়েছে।

জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করার উপায়

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য অর্থাৎ আপনি যদি বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন ওয়েবসাইট থেকে আপনার নিজের জাতীয় পরিচয় পত্র অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে চান তাহলে আপনাকে নিচের ধাপগুলো অতিক্রম করতে হবে।

জাতীয় পরিচয় পত্র অনলাইন কপি ডাউনলোড করার ধাপসমূহ

বর্তমান সময়ে আমরা চাইলে নিজের জাতীয় পরিচয় পত্র অর্থাৎ ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন থেকে যেকোনো সময় ডাউনলোড করে সিটি প্রিন্ট করে ব্যবহার করতে পারব। আজকে আমরা জাতীয় পরিচয় পত্র অনলাইন কপি ডাউনলোড করার বিষয়টি কয়েকটি ধাপে বিরক্ত করেছি যাতে করে আপনারা ছোট ছোট ধাপগুলো অতিক্রম করার মাধ্যমে আপনাদের জাতীয় পরিচয় পত্র টি খুব সহজে ডাউনলোড করতে পারেন এবং সেটি ব্যবহার করতে পারেন…

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে যা যা প্রয়োজন হবে

আমরা যে  জাতীয় পরিচয় পত্র টি ডাউনলোড করতে চাচ্ছি, সেই জাতীয় পরিচয় পত্র পত্রের কিছু তথ্য আমাদের প্রয়োজন হবে। অনলাইন থেকে জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করতে যে সকল তথ্যের প্রয়োজন হয় তা নিচে দেওয়া হল

  • জাতীয় পরিচয় পত্র নাম্বার / ভোটার স্লিপ নাম্বার
  • জন্মতারিখ (dd/mm/yyyy)
  • মোবাইল নাম্বার (আইডি কার্ড করার সময় যে নাম্বার দেওয়া ছিল)
  • বর্তমান ঠিকানা (আইডি কার্ড করার সময় যে ঠিকানা দেওয়া ছিল)
  • স্থায়ী ঠিকানা (আইডি কার্ড করার সময় যে ঠিকানা দেওয়া ছিল)
  • এবং যার আইডি কার্ড সে ব্যক্তি স্বয়ং উপস্থিত থাকতে হবে

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য উপরে যে সকল ডকুমেন্ট প্রয়োজন আশা করি সব গুলো আপনার কাছে রয়েছে। 

***যার জাতীয় পরিচয় পত্র সে ব্যক্তির ব্যতীত অন্য কেউ অনলাইন থেকে জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করতে পারবে না। কারণ ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য ফেইস ভেরিফিকেশন ( Face verification) প্রয়োজন হয়।

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড

আমরা এখন অনলাইন থেকে ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড করার জন্য প্রস্তুত। অনলাইন থেকে ভোটার আইডি কার্ড বা জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করার জন্য যে সকল তথ্য প্রয়োজন সব আমাদের হাতে রয়েছে।

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার নিয়ম

Time Required Only 30 minutes

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার ওয়েব সাইটে প্রবেশ

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার ওয়েব সাইটে প্রবেশ

NID card download বা জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করার প্রথম ধাপে আমরা বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন এর ভোটার তথ্য পেয়ে যাব। services.nidw.gov.bd

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য নিবন্ধন

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

আমাদের জাতীয় পরিচয় পত্র টি অনলাইন থেকে ডাউনলোড করার জন্য বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন ওয়েবসাইটে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে অর্থাৎ আমাদের কিছু তথ্য প্রদান করতে হবে।
আমাদের যেহেতু এর আগে জাতীয় পরিচয় পত্র নিবন্ধন ওয়েবসাইট অ্যাকাউন্ট করা ছিল না তাই রেজিস্টার করুন বাটনে ক্লিক করে অগ্রসর হতে হবে

জাতীয় পরিচয় পত্র তথ্য যাচাই

Instructions For NID Card Correction

এনআইডি কার্ড বা জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করার এই ধাপে এসে আমাদের ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য প্রদান করতে হবে। এ পর্যায়ে আমাদের জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর অথবা জাতীয় পরিচয় পত্র করার সময় যে ফর্ম দিয়েছিল সেই ফরমের নাম্বার প্রয়োজন হবে। 
আমাদের দেখানো নিয়মগুলো অনুসরণ করলে আপনি উপরের ছবির নেই মত কিছু তথ্য প্রদান করার জন্য ফর্ম দেখতে পাবেন যেখানে প্রথমে জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর অথবা ফরম নম্বর বলে একটি ঘর রয়েছে সে ঘরে আপনাকে জাতীয় পরিচয় পত্রের নাম্বার অথবা ফর্মে থাকা নাম্বারটি ইনপুট করতে হবে।
এরপরে ক্রমান্বয়ে জন্ম তারিখের দিন, মাস ও বছর  এরূপে ফরমটি পূরণ করতে হবে এবং সর্বশেষ ঘরে আপনাকে একটি ক্যাপচা দিয়ে সাবমিট বাটনে চাপতে হবে।

ভোটার আইডি কার্ড ঠিকানা যাচাই

জাতীয় পরিচয়পত্র অনলাইন কপি ডাউনলোড করার আগের ধাপটি সঠিকভাবে পূরণ হলে আপনাকে এখন বর্তমান ঠিকানা এবং স্থায়ী ঠিকানা যাচাই করতে হবে। 
এই ধাপে আপনাকে প্রথমে বিভাগ, জেলা এবং উপজেলা সিলেক্ট করতে হবে। যদি বর্তমান ঠিকানা এবং স্থায়ী ঠিকানা আলাদা হয় তাহলে আপনি আলাদাভাবে তথ্য প্রদান করবেন আর যদি একই হয় তাহলে বর্তমান এবং স্থায়ী ঠিকানা স্থলে একই ঠিকানা প্রদান করবেন।

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড মোবাইল নাম্বার যাচাই

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড মোবাইল নাম্বার যাচাই

আশা করছি আপনি প্রতিটি ধাপ সঠিকভাবে পূরণ করতে সক্ষম হয়েছেন যদি সবকিছু সঠিক থাকে তাহলে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার এই ধাপে আপনাকে আপনার মোবাইল নাম্বারটি ভেরিফাই করতে বলা হবে।
আপনি জাতীয় পরিচয় পত্র বা ভোটার আইডি কার্ড করার সময় যে নাম্বারটি দিয়েছিলেন সে নাম্বারটি তে সেই নাম্বারটিতে একটি এসএমএস পাঠানো হবে এসএমএসে একটি ছয় সংখ্যার কোড দেওয়া থাকবে, সেই কোডটি আপনাকে লিখে বহাল এ ক্লিক করতে হবে।
বিঃদ্রঃ- যদি কোনো কারণবশত আপনার ওই নাম্বারটি না থেকে থাকে তাহলে আপনি নাম্বারটি পরিবর্তন করে আরেকটি নাম্বার ব্যবহার করতে পারবেন।

জাতীয় পরিচয় পত্র অনলাইন কপি ডাউনলোড

অনলাইন থেকে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য যার আইডি কার্ড তাকে উপস্থিত থাকতে হবে।উপরের সবগুলো তবে সঠিকভাবে পালন করা হলে এখন আপনি দেখতে পাবেন ফেইস ভেরিফিকেশন এর কথা বলা হচ্ছে।
আপনাকে প্লে স্টোর থেকে NID Wallet App ইন্সটল করতে হবে। এবং যার এনআইডি কার্ড ডাউনলোড করতে চান তার ফেইস স্ক্যান করে ভেরিফাই করতে হবে। ফেস ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হলেই আপনি আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের অনলাইন কপি ডাউনলোড সহ ভোটার আইডি কার্ডের সকল তথ্য দেখতে পাবেন।

ভোটার আইডি কার্ড চেক

আপনি যদি নতুন ভোটার আইডি কার্ড করে থাকেন অর্থাৎ আপনি নতুন জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্য আবেদন করেছেন কিন্তু আপনি জানেন না আপনার ভোটার আইডি কার্ড এখনো অনলাইনে এসেছে কিনা এজন্য আপনাকে ভোটার আইডি কার্ড চেক করতে হবে।

ভোটার আইডি কার্ড চেক করা খুবই সহজ আপনি যখন বাজারে পরিচয় পত্রের জন্য আবেদন করেছেন তখন আপনাকে একটি স্লিপ বা ফরম দেওয়া হয়েছে সেখানে রয়েছে ফরম নাম্বার। এখন আপনার ফ্রম এটা কার নাম্বার ব্যবহার করে এই পোষ্টের প্রথম ধাপ থেকে তৃতীয় ধাপ পর্যন্ত অনুসরণ করুন। 

যদি আপনার এনআইডি কার্ড বা জাতীয় পরিচয় পত্র অনলাইন হয়ে থাকে তাহলে আপনি পরবর্তী ধাপে যেতে পারবেন আর যদি আপনার এনআইডি কার্ড এখনো অনলাইন না হয়ে থাকে তাহলে বলা হবে আপনার তথ্য সঠিক নয়।

সংশোধিত ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

অনেকেই আবার জাতীয় পরিচয় পত্র বা ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করার জন্য আবেদন করে থাকে। আপনার ভোটার আইডি কার্ডে যদি সংশোধিত হয়েথাকলে, আপনার মোবাইলে একটি এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দেওয়া হবে এবং অনলাইন থেকে সেটি ডাউনলোড করার কথা উল্লেখ করা থাকে।

সংশোধিত ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার জন্য আজকে দেখানো প্রথম ধাপটি থেকে শুরু করে বাকি ধাপগুলো ক্রমান্বয়ে অনুসরণ করুন এবং ডাউনলোড অপশন থেকে আপনার সংশোধিত ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করুন।

আশা করি আজকের পোস্টটি থেকে আপনারা ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার নিয়ম জানতে পেরেছেন তারপরও যদি আপনাদের বুঝতে কোথাও সমস্যা হয় তাহলে কমেন্ট করে জানাবেন আপনাদের সমস্যার সমাধান দেওয়ার জন্য চেষ্টা করব।

ভোটার আইডি কার্ড কিভাবে বানাবো?

আপনার বয়স ১৬ বছরের বেশি হলে, অনলাইনে নতুন জাতীয় পরিচয়পত্র বা ভোটার আইডি কার্ডের জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন।

কিভাবে জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করব?

জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করার জন্য ভিজিট করুন services.nidw.gov.bd এই ওয়েবসাইট। এখানে রেজিস্টার করুন অপশন থেকে আপনার ভোটার নিবন্ধন স্লিপ নম্বর বা জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর, জন্ম তারিখ, মোবাইল নম্বর দিয়ে ফেইস ভেরিফিকেশন করার মাধ্যমে জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোড করতে পারবেন।

আইডি কার্ড ডাউনলোড হচ্ছে না?

ডাউনলোড লিংকে ক্লিক করার পর যদি আপনার আইডি কার্ড ডাউনলোড না হয়ে থাকে, তাহলে বুঝবেন আপনাকে আইডি কার্ড রিইস্যু আবেদন করতে হবে। নিচে দেখুন পুরাতন ও হারানো ভোটার আইডি কার্ড বের করার প্রক্রিয়া।

36 thoughts on “ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করার নিয়ম ২০২৩”

  1. আমি ১৯১৭ সালে ভোটার হয়েছি কিন্তুআমি এখনো এন আই ডি কার্ড পাইনি তাই আমার এন আই ডি কার্ড ডাউনলোড করতে হবে

Leave a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Scroll to Top